বিন্দুর প্রতীক্ষার অবসানবিনোদন রিপোর্ট দীর্ঘ চার বছর পর দর্শকনন্দিত অভিনেত্রী বিন্দুর প্রতীক্ষার অবসান ঘটতে যাচ্ছে। আগামী ডিসেম্বরে তার অভিনীত মুক্তিযুদ্ধভিত্তিক চলচ্চিত্র 'এই তো প্রেম' মুক্তি পাচ্ছে। ২০০৯ সালে এ ছবির শুটিং শুরু হয়েছিল। কিছুদিন আগে কাজ শেষ হয়েছে। ছবিটি পরিচালনা করেছেন সোহেল আরমান। এ প্রসঙ্গে তিনি বলেন, 'খুব শিগগিরই ছবিটি সেন্সর ছাড়পত্রের জন্য জমা দেয়া হবে। এটি বিজয় দিবসে মুক্তি দেয়ার পরিকল্পনা রয়েছে। সেভাবেই আমরা যাবতীয় কাজ এগিয়ে নিচ্ছি।'
এ প্রসঙ্গে বিন্দু জানান, 'এই তা প্রেম' পুরোপুরি মুক্তিযুদ্ধের গল্পনির্ভর হওয়ার কারণে দীর্ঘ সময় নিয়ে শুটিং করতে হয়েছে। কারণ, মুক্তিযুদ্ধের টানা ৯ মাসের ঋতুভিত্তিক বিভিন্ন চিত্র এ ছবিতে তুলে ধরতে হয়েছে। অনেক চড়াই-উতরাই পেরিয়ে অবশেষে ছবির কাজ শেষ করতে পেরেছি। আশা করি, ছবিটি দর্শকদের ভালো লাগবে।'
এ ছবিতে বিন্দুর বিপরীতে অভিনয় করেছেন চিত্রনায়ক শাকিব খান। এতে বিন্দু গ্রামের সহজ-সরল মেয়ে মাধবীর চরিত্রে অভিনয় করেছেন। মাধবীর রূপ আর চঞ্চলতা একই গ্রামের ছেলে সূর্যকে (শাকিব খান) মুগ্ধ করে। অতঃপর তাদের মধ্যে সখ্যতা গড়ে ওঠে। এরপরই শুরু হয় নানা টানাপড়েন। ২০০৯ সালের শেষের দিকে এ ছবির গানের অ্যালবাম বাজারে এসেছিল। এ অ্যালবামে হাবিব এবং ন্যান্সির গাওয়া 'আমি তোমার মনের ভেতর একবার ঘুরে আসতে চাই' গানটি বেশ শ্রোতাপ্রিয়তা পায়।
এদিকে, লাক্স-চ্যানেল আই সুপারস্টার প্রতিযোগিতার পর বিন্দু তৌকির আহমেদ পরিচালিত 'দারুচিনি দ্বীপ' ছবিতে প্রথম অভিনয় করেন। এরপর তার আরো দুটি চলচ্চিত্র মুক্তি পেয়েছে। ছবিগুলো হলো- 'পিরিতের আগুন জ্বলে দ্বিগুণ' এবং 'জাগো'। তবে আপতত বিন্দু চলচ্চিত্র থেকে কিছুটা দূরে রয়েছেন। বর্তমানে তিনি কোরবানির ঈদের নাটক-টেলিছবি নিয়ে ব্যস্ত সময় পার করছেন বলে জানিয়েছেন।
 
এই প্রতিবেদন সম্পর্কে আপনার মতামত দিতে এখানে ক্লিক করুন
অনলাইন জরিপ
অনলাইন জরিপআজকের প্রশ্নপ্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, রাষ্ট্রপতির ক্ষমার বিধান বাতিল করা যায় না_ আপনি কি এ বক্তব্যের সঙ্গে একমত?হ্যাঁনাজরিপের ফলাফল
আজকের ভিউ
পুরোনো সংখ্যা
2010 The Jaijaidin